nikti.com.bd

১৭ শ্রেণীর লোক যারা মুসলিম হয়েও জাহান্নামে যাবে

আসসালামু আলাইকুম, 

জাহান্নামী মানুষ ২  রকম।   

ক) যারা অমুসলিম,  মুসলিম নয় তারা।
খ) যারা মুসলিম হয়েও জাহান্নামে যাবে এমন ১৭ শ্রেনীর লোক পাওয়া যায় বিভিন্ন সহীহ হাদিসে  এসেছে। আল্লাহ কোন সময় মাফ করলে পরে তারা জান্নাতে যাবে। কিন্তু যে একবার জান্নাতে প্রবেশ করবে সে আর জান্নাত থেকে বের হবেনা, বা তাকে বের করা হবেনা।

 

আসুন জেনে নিই সেই ১৭ শ্রেনীর মানুষদের পরিচয়, হয়তো সতর্ক হয়ে যেতে পারবো আমরা —

১। যে শরীর হারাম দিয়ে গঠিত। অর্থাৎ হারাম উপায়ে অর্থ অর্জন কারী ব্যক্তি। তা দিয়ে জামা কাপড় কেনা, কিছু কিনে খাওয়া, কিছু কিনে অন্যত্র জমা রাখা, জমি কেনা ও হতে পারে।

২। আত্মীয়তার সম্পর্ক ছিন্নকারী। 
 শরিয়তের কোন কারণ ছাড়া কথায় বার্তা – উঠা বসা বন্ধ করে দেওয়া।

৩। প্রতিবেশী কে যে কস্ট দেয় যে। কোন ময়লা, আবর্জনা, কিছুর পচা গন্ধ বা চিৎকারের কথা বার্তা, বা গান বাজানোর দ্বারা।

৪। মা বাবার অবাধ্য সন্তান।  কোন কুফুরী বা শিরকী কাজের আদেশ মানবেন না, এটা ছাড়া যে কোন আদেশ আপনি মানতে হবে। তবে ব্যবহার খারাপ করা যাবেনা।

৫। উগ্র মেজাজের মানুষ, সকলকে দমায়ে রাখতে চায় যে, কঠিন স্বভাবের মানুষ, বিনয় বিনম্রতা হীন, খটমট করে সারাক্ষন। 

৬। যে সকল মনিবেরা তাদের অধিনস্থ দেরকে ধোকা দেয়। সে কোন কোম্পানীর মালিক ও হতে পারে, কোন লিডার ও হতে পারে।


৭। অন্যের সম্পদ কে অন্যায়ভাবে আত্মসাত কারী ব্যক্তি।

৮। উপকার করে খোট দান কারী ব্যক্তি।

৯। চোগলখোর ব্যক্তি। এর দোষ ওর কাছে, ওর দোষ এর কাছে বলে, মানুষের মধ্যে “লাগিয়ে দেয়”। এর মাধ্যমে সবার কাছে ভালো থাকতে চায় এমন লোকও। 

১০।  অন্যের বাবা কে নিজের বাবা হিসেবে পরিচয় দেওয়া। অনেক সময় পালক সন্তান রা এরকম করতে পারে, যে জন্ম দিলো তাকে না বলে যে পালন করে তাকে বাবা বলে পরিচয় দেয়।

১১। যার মনের ভেতর অহংকার আছে, যে গর্ব। অহংকার করে। অহংকার পড়াশূনা, পোশাক, চেহারা, মান সম্মান, কর্ম বা বেতনের ক্ষেত্রেও করতে পারে। অন্যকে নিজের চেয়ে এসকল দিক থেকে কোন এক্টীতে বা কয়েকটিতে ছোট ভাবা / নিজেকে বড়, ভালো , উন্নত ভাবা ই অহংকার।

১২। যে ব্যক্তি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে ফলো করেনা, তার নির্দেশকে মান্য করেনা ।

১৩। যে মহিলা অকারনে তালাক কামনা করে / তালাক চায় সেই মহিলা। কআরণ, শয়তান সবচাইতে খুশী হয় সেই যায়গাতে যেখানে ২ জনের সংসারে বিচ্ছেদ ঘটে যায়। আর তালাক চাওয়া ও সেই অথের উপায় ই।

১৪।  দুনিয়াবী উদ্দেশ্যে যারা এলেম শেখে। যেমন – লোকে মাওলানা বলবে, দাওয়াত টাওয়াত খাওয়া যাবে, লোকে ভাও বলবে ও কথা শুনবে,  এরকম উদ্দেশ্য  থাকিলে । আলাহকে খুশি করা ছাড়া অন্য কোন ধান্ধায় এলেম অর্জন করলে। বা যে কোন আমল করলে।

১৫। দাড়ি বা চুলে কোন মেহেদী মিশ্রন ছাড়া পিউর কালো কলপ ব্যবহার করলে।

১৬। যে কোন ভালো কাজ করে তা ফলাও ও প্রচার করা।

১৭।  ওয়ারিশ দেরকে সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করে। 
আমরা যাচাই করি, আমরা যেন এই ১৭ শ্রেনীর ভেতর না পড়ী, পড়ে থাকলে মাফ চাই আল্লাহর কাছে ও দূরে চলে যাই সেই গুনাহ থেকে, তাহলে আমরা আল্লাহর কাছে জান্নাত আশা করতে পারি ইন শা আল্লাহ। 
বর্ণনা: শায়খ আহমাদুল্লাহ,
পোস্ট সোর্স /শ্রুতি লেখন: Readme2Know
সাজেশন: সূলভ মূল্যে একটি ইসলামিক বই কিনতে  এখানে ক্লিক করুন।  

Please put your valuable comment here (Leave a Reply)

%d bloggers like this: