মুক্ত বাতাসের খুঁজে বই রিভিউ

বই: মুক্ত বাতাসের খুঁজে
সম্পাদক : আসিফ আদনান
বিষয় : পর্ণোগ্রাফি, মাস্টাবেশন এবং বিকৃত যৌনতা নিয়ে গবেষণাধর্মী বই

পাঠ অনুভূতি : এই ট্যাবুগুলো কিভাবে আমাদের সামাজিক ও পারিবারিক জীবনকে বিষাক্ত ও বিপর্যস্ত করে তুলছে তার সুস্পষ্ট বিবরণ আছে বইটিতে।

নিজে এড়িয়ে গেলেই আপনি এই বিষক্রিয়া থেকে বাচঁতে পারবেন না। পরিবারের অপরিণত সদস্যগুলোকে মোবাইল ফোনের নামে কি বিষ পেয়ালা তুলে দিচ্ছেন তা অনুভব করতে হয়। পাশ্চাত্য সভ্যতার ধ্বংসলীলা আমাদের মধ্যে কীভাবে ছড়িয়ে যাচ্ছে তাও দৃশ্যমান হবে।

আমি পাঠক সমাজকে সাবধান করে দিচ্ছি, অনেক লিখাই হজম করতে কষ্ট হবে, দুনিয়ার কদর্য রূপ সম্পর্কে খুব কমই সচেতন, খুব কমই সতর্ক আমরা এটা নতুন করে উপলব্ধি করবেন এই বইয়ে। বইটা পড়া শুরু করে মাঝপথে এসে দম বন্ধ হয়ে আসছে বলে মনে হলেও প্লিজ চলে যাবেন না। আপনি মুখ লুকালেও সত্য কখনো বদলাবে না, সব সমস্যা আপনাআপনি ঠিক হয়ে যাবে না। তাহলে কী করবেন? বইটার পরের ১০৬ পেজ ধরে লিখা ‘বৃত্তের বাইরে’ অধ্যায়টি ভালোভাবে পড়ুন, মনোযোগ দিয়ে। লেখক খুব যত্ন নিয়ে ভেঙে ভেঙে আলোচনা করেছেন কীভাবে এই অন্ধকার, স্যাঁতসেঁতে, নোংরা, গ্লানিময় জীবন থেকে বের হয়ে আসা যায়।

এটা সবার জানা খুব দরকার। আপনি নিজে বা আপনার পরিবারের সন্তান/ ভাই/ বোন হয়তো এই মরণব্যাধিতে আসক্ত কিংবা আপনার স্বামী বা স্ত্রী! কীভাবে সামলাবেন পরিস্থিতি? কীভাবে নিজে বের হয়ে আসবেন? এসবের উত্তর দেয়া আছে এখানে। প্রয়োজন শুধু মনের জেদ আর আপ্রাণ চেষ্টা করে যাওয়া। বইয়ের একদম শেষের লেখাটা (‘মুক্ত বাতাসের খোঁজে’) অনেক অনুপ্রেরণা দিবে। যা অনুসরণ করতে পারলে হয়তো এই বিষবলয় ছিন্ন করে আবার পৃথিবীতে বিশুদ্ধ বাতাস ছড়িয়ে দেওয়ার অবকাশ মিলবে।

Please put your valuable comment here (Leave a Reply)

%d bloggers like this: