প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ বই রিভিউ

বর্তমানে আমাদের বিশ্বব্যবস্থায় বিজ্ঞান খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। বিজ্ঞানের এই অগ্রগতি মানুষের পুরানো অনেক বিশ্বাসকে ভেঙে নতুন কিছুকে গ্রহণ করতে শিখিয়েছে। যেমন, এক সময় মানুষ মনে করতো পৃথিবী সমতল। কিন্তু পরবর্তী সময় বিজ্ঞানের অগ্রগতির কারনে আমরা বুঝতে পারি, পৃথিবী আসলে সমতল নয় বরং গোলাকার। ধীরে ধীরে বিজ্ঞানের উন্নতির সাথে এক শ্রেণির মানুষ আল্লাহ্কে তথা সৃষ্টিকর্তাকে অবিশ্বাস করতে শুরু করে। তারা বিশ্বাস করতে শুরু করে, যা দেখা যায় না তা বিশ্বাসযোগ্য নয়। তাই ঐশ্বরিক শক্তিকে তারা অবিশ্বাস করতে শুরু করে। নিজেকে নাস্তিক হিসেবে অভিহিত করার প্রথম ধাপ শুরু হয় ইউরোপে ১৮ শতকের শেষভাগে। পরবর্তীতে বিশ শতকে বিশ্বায়নের মাধ্যমে এই শব্দের ব্যাপক প্রসারের জন্য এর অর্থ দাঁড়ায় সর্বপ্রকার দৈবশক্তিতে অবিশ্বাস।

এক সময় বাংলাদেশের প্রতিটা পাড়ায়-মহল্লায় মক্তবের প্রচলন ছিল। যেখানে ছোট ছেলে-মেয়েরা গিয়ে দ্বীনের মৌলিক জ্ঞান আহরণ করতো, যার ফলে এদেশে নাস্তিকতাবাদ জায়গা নিতে পারেনি। কিন্তু বর্তমানে বাবা-মায়ের খামখেয়ালী মনোভাবের কারনে সন্তানেরা দ্বীনের সেই মৌলিক জ্ঞান থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। পরবর্তীতে মুক্তবুদ্ধির চর্চা, বিজ্ঞান ও বিবর্তনবাদের নাম করে একজন মুসলমানকে স্বঘোষিত নাস্তিক করার চক্রান্ত করছে একটি মহল।

এরই প্রেক্ষাপটে ২০১৭ সালে প্রকাশিত হয় প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ নামের বইটি। যেখানে ‘আরিফ আজাদ’ অত্যন্ত যৌক্তিকভাষায়, গল্পের মাধ্যমে অবিশ্বাসীদের সেসব প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন। বইয়ের কেন্দ্রীয় চরিত্রে রয়েছে, সাজিদ, লেখকের রুমমেট। প্রথম জীবনে খুব ধার্মিক হলেও পরবর্তীতে সে স্রষ্টার উপর থেকে বিশ্বাস হারিয়ে নাস্তিক হয়ে যায়। পরবর্তীতে বিভিন্ন ঘটনার মাধ্যমে লেখক তাকে দ্বীনের পথে ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হন। এরপর শুরু হয় সাজিদের নতুন যাত্রা, সত্য উন্মোচনের লডাই। সাজিদের দৈনন্দিন জীবনের এসব ঘটনাগুলোকে গল্পের মাধ্যমে বেশ সুন্দর করে ফুটিয়ে তুলেছেন লেখক।

*বইটি আমাদের মতন যারা স্কুল-কলেজে পড়ছি, তথা অনৈসলামিক কালচারে বড় হচ্ছি তাদের জন্য বাধ্যতামূলক পড়া উচিৎ বলে আমি মনে করি। এছাড়াও সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের জন্য বইটি সমান গুরুত্বপূর্ণ। বইটি পড়লে আশা করা যায়, কেউ নাস্তিকতাবাদের ফাঁদে পা দেবে না। ইনশাআল্লাহ।

বইঃ প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ
লেখকঃ আরিফ আজাদ
মূল্যঃ ২৬০ টাকা (পেপারব্যাক)

 

Reviewer: Abir Israq

Please put your valuable comment here (Leave a Reply)

%d bloggers like this: